ভিসাসমূহ

রাষ্ট্রপতি ঘোষিত ইশতেহার ১০০১৪ বাতিলকরণ
রাষ্ট্রপতি বাইডেন ২৪ শে ফেব্রুয়ারী, ২০২১ এ “কোভিড ১৯ এর প্রাদুর্ভাবের পরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমবাজারে ঝুঁকি হিসেবে বিবেচিত অভিবাসীদের প্রবেশ স্থগিতকরণ ” শিরোনামে ঘোষিত ইশতেহার (পিপি) ১০০১৪ বাতিল করেন। অভিবাসী ভিসা আবেদনকারীরা যারা এই ঘোষণার দ্বারা প্রভাবিত হয়েছিল তাদের এখানে নির্দেশাবলী পর্যালোচনা করা উচিত

রাষ্ট্রপতি ঘোষিত ইশতেহার ১০০৫২
রাষ্ট্রপতি ঘোষিত ইশতেহার ১০০৫২ যা, নির্দিষ্ট অন-অভিবাসী যারা যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমবাজারে কোভিড -১৯ এর প্রাদুর্ভাব পরবর্তী অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের সময় ঝুঁকি হিসেবে বিবেচিত হবে তাদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ স্থগিত করে, তা এখনো কার্যকরী । বিশেষত, পি.পি. ১০০৫২ এর স্থগিতাদেশ এইচ -১ বি, এইচ -২ বি, এবং এল -১ ভিসা, জে-১ ভিসা আবেদনকারী যারা ইন্টার্নী, প্রশিক্ষণার্থী, শিক্ষক, শিবিরের পরামর্শদাতা, আউ পেয়ার, বা গ্রীষ্মের কাজের ভ্রমণের প্রোগ্রামে অংশ নেওয়া এবং তাদের স্ত্রী এবং শিশু যারা এইচ -৪, এল -২, বা জে -২ ভিসার জন্য আবেদন করবে, তাদের জন্য প্রযোজ্য।

ভ্রমণের উদ্দেশ্য ও অন্যান্য বিষয় থেকেই ঠিক হবে যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন আইন অনুযায়ী আপনার কোন ধরনের ভিসা লাগবে। ভিসার আবেদনকারী হিসেবে আপনাকে এটা ভালোভাবে দেখাতে হবে, যে ধরনের ভিসা চাইছেন তার জন্য প্রয়োজনীয় সব শর্ত আপনি পূরণ করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে ইচ্ছুক বিদেশি নাগরিকের সাধারণত এজন্য প্রথমেই একটি ভিসা লাগবে। ভিসা ভ্রমণকারীর পাসপোর্টে লাগিয়ে দেওয়া হয়। পাসপোর্ট হচ্ছে একজন ভ্রমণকারীর নিজের দেশের ইস্যু করা ভ্রমণ বিষয়ক ডকুমেন্ট।

ভিসামুক্ত ভ্রমণের শর্ত পূরণ করতে পারলে কোন কোন বিদেশি ভ্রমণকারী হয়তো ভিসা ছাড়াই যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইটের ভিসা অংশটিতে যুক্তরাষ্ট্র সফরে যেতে আগ্রহী বিদেশি নাগরিকদের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য রয়েছে।

(দ্রষ্টব্য: যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের ভ্রমণের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা লাগে না। তবে বিদেশি কোন রাষ্ট্রে যেতে চাইলে সে দেশের দূতাবাস থেকে ভিসা সংগ্রহ করতে হতে পারে।)

কাস্টমার সার্ভিস প্রতিনিধির সঙ্গে যোগাযোগ করতে হলে বিস্তারিত তথ্যের জন্য ওয়েবপেজটি ভিজিট করুন। অথবা নিচের তথ্য অনুযায়ী যোগাযোগ করুন:

ইমেইল:

  • ভিসা সংক্রান্ত প্রশ্নের জন্য: support-bangladesh@ustraveldocs.com
  • ভিসা বিষয়ক জালিয়াতি, অনিয়ম বা অপরাধের খবর দেওয়ার জন্য: DhakaFraud@state.gov

টেলিফোন:

  • বাংলাদেশের মধ্যে: ০৯৬১০২০২০৪০
    (সময়: রোববার থেকে বৃহস্পতিবার, সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ টা (ছুটির দিন বাদে)
  • যুক্তরাষ্ট্রের ভেতরে: ৭০৩-৯৮৮-৩৪৬৬
    (সময়: রোববার থেকে বৃহস্পতিবার, সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ টা । যুক্তরাষ্ট্রের ইস্টার্ন স্ট্যান্ডার্ড টাইম)

ফ্যাক্স বা চিঠির মাধ্যমে কোন যোগাযোগ

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর দেশের স্বার্থ সবচেয়ে ভালোভাবে রক্ষার লক্ষ্যে কঠোর কিন্তু নিরপেক্ষভাবে ভিসা প্রক্রিয়া ব্যবস্থাপনা করে। যুক্তরাষ্ট্র যে উন্মুক্ততার জন্য সুপরিচিত তার প্রতি আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ। যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ করাকে আমরা স্বাগত জানাই ও উৎসাহিত করি।

ভিসা আবেদনকারীদের প্রতি আমাদের অঙ্গীকার:

  • আমরা আপনার সঙ্গে মর্যাদা ও সম্মানের সঙ্গে আচরণ করব, এমনকী ভিসা দেওয়া সম্ভব না হলেও।
  • আমরা আপনাকে একজন ব্যক্তি হিসেবেই দেখব। আপনার আবেদন দেখা হবে অন্যদের চেয়ে পৃথক, অনন্য হিসেবে।
  • আমরা মনে রাখব যে, ভিসার সাক্ষাৎকার আপনার কাছে একটি নতুন ও ভীতিকর বিষয় হতে পারে এবং আপনি হয়তো অপ্রতিভ থাকবেন।
  • সাক্ষাৎকারের জন্য প্রাপ্ত সীমিত সময়কে আমরা আপনার ভ্রমণ পরিকল্পনা ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে যতটা সম্ভব স্পষ্ট একটি ধারণা পেতে কাজে লাগাব।
  • আমরা আমাদের সব সক্ষমতাকে আবেদনকারীদের ন্যায্যভাবে সহায়তা করতে কাজে লাগাব যাতে তারা ব্যবসায়িক কাজ, পড়ালেখা ও অন্যান্য জরুরি প্রয়োজনে সময়মত যুক্তরাষ্ট্রে যেতে পারার মতো সময়ে অ্যাপয়েনমেন্ট পান।
  • আমরা ভিসা পাওয়ার প্রয়োজনীয় শর্ত ও আবেদনের পদ্ধতি বিষয়ে সব দূতাবাস ও কনস্যুলেটের ওয়েবসাইটে বিস্তারিত ও নিখুঁত তথ্য তুলে দেবো।
  • সব দূতাবাস ও কনস্যুলেটে অ-অভিবাসন ভিসা অ্যাপয়েনমেন্টের জন্য অপেক্ষার সময় বিষয়ক তথ্য আমরা http://travel.state.gov ঠিকানায় সরবরাহ করবো।
  • ভিসা দেওয়া না হলে আমরা আপনার কাছে তার কারণ ব্যাখ্যা করবো।

তাছাড়াও, আপনি যদি

  • শিক্ষার্থী হন তাহলে পড়াশোনা যথাসময়ে শুরু করা নিশ্চিত করতে যাতে সময়মত অ্যাপয়েনমেন্ট ও (যোগ্য হলে) ভিসা পান সেজন্য সম্ভাব্য সব চেষ্টা চালাবো।
  • চিকিৎসা ও জরুরি মানবিক সহায়তা বিষয়ক ভ্রমণকারী হন তাহলে জীবন হুমকির সম্মুখীন এমন ক্ষেত্রে ভিসার প্রক্রিয়া দ্রুততর করবো।
  • যদি ব্যবসা বিষয়ে ভ্রমণেচ্ছু হন তাহলে আমরা সফর সহজ করার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নেবো এবং বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সম্পর্কিত বিষয়গুলো ত্বরান্বিত করবো।

একইসঙ্গে আমরা আশা করি যে, ভিসার আবেদনকারী হিসেবে আপনি:

  • যতটা সম্ভব আগে ভ্রমণের পরিকল্পনা ও ভিসার আবেদন করবেন।
  • আবেদনপত্র পুরোপুরি এবং সঠিকভাবে পূরণ করবেন।
  • ভ্রমণের উদ্দেশ্য ও পরিকল্পনা সম্পর্কে খোলামেলাভাবে সব বলবেন ।
  • সাক্ষাতকারে আপনার ভ্রমণের উদ্দেশ্য স্পষ্ট ও সংক্ষিপ্তভাবে বলার জন্য প্রস্তুতি নিন।