Flag

An official website of the United States government

ইমিগ্র্যান্ট ভিসা

কোভিড–১৯ সংক্রান্ত যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণের প্রয়োজনীয়তা

অভিবাসী প্রক্রিয়ার জন্য কোভিড –১৯ এর টিকা প্রয়োজন। প্রয়োজনীয় টিকা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্যের জন্য, অনুগ্রহ করে travel.state.gov ওয়েবসাইটটি দেখুন বা প্যানেল চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করুন।

পরিচিতি

বাংলাদেশের নাগরিক ও বাসিন্দাদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্র্যান্ট ভিসা কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয় ঢাকায় অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস থেকে।

কোনো বিদেশি নাগরিককে যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্র্যান্ট ভিসার আবেদন করতে হলে সাধারণত তাকে অবশ্যই যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক বা বৈধ স্থায়ী নাগরিক এমন ঘনিষ্ঠ আত্মীয় কিংবা যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাব্য নিয়োগকর্তার স্পনসর পেতে হয়। ইমিগ্র্যান্ট ভিসার জন্য আবেদনের পূর্বে তার পিটিশন অনুমোদিত হতে হবে। সংশ্লিষ্ট বিদেশি নাগরিকের পক্ষে তার স্পনসর ইউএস সিটিজেনশিপ অ্যান্ড ইমিগ্রেশন সার্ভিসেসে (ইউএসসিআইএস) পিটিশন পূরণ করার মধ্য দিয়ে এই প্রক্রিয়া শুরু করবে। আপনি চাইলে ঠিকানায় আমাদের ভিসার শ্রেণি বিষয়ক নির্দেশিকা দেখে ইমিগ্র্যান্ট ভিসার বিভিন্ন ধরন সম্পর্কে জানতে পারবেন। তারপর ঠিকানায় ইমিগ্র্যান্ট ভিসা প্রক্রিয়া  অপশনে ঢুকে নির্দেশিত ধাপগুলো অনুসরণ করে ইমিগ্র্যান্ট ভিসার আবেদন শুরু করতে পারেন।

ইউএসসিআইএস কর্তৃক আপনার পিটিশন অনুমোদিত হওয়া এবং আপনি ন্যাশনাল ভিসা সেন্টারের (এনভিসি) প্রাথমিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পর পরবর্তী করণীয় বিষয়ে নির্দেশনার জন্য এই ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্যগুলোর পাশাপাশি এনভিসির নির্দেশনাগুলো পর্যালোচনা করুন।

বর্তমান অগ্রাধিকারের তারিখ

ভিসা প্রাপ্যতা সম্পর্কিত বার্তা  

পরিবার ভিত্তিক এবং চাকুরী ভিত্তিক ভিসা প্রদানের সংখ্যা কংগ্রেস কর্তৃক সীমাবদ্ধ।এই ক্যাটাগরির আবেদনকারীদের সাক্ষাৎকার নির্ধারিত হয় যদি তাদের অগ্রাধিকার তারিখ হাল নাগাদ থাকে ভিসার সংখ্যা বর্তমান থাকে তথাপি, অগ্রাধিকার তারিখের পরিবর্তন হতে পারে এবং সাক্ষাৎকারের সময় ভিসার সংখ্যা আর বর্তমান নাও থাকতে পারে আপনার ক্যাটাগরির ভিসার সংখ্যা যদি বর্তমান না থাকে তবুও আপনার সাক্ষাৎকার যথা সময়ে হবে, তবে আপনার ভিসা ততদিন পর্যন্ত ইস্যু হবে না, যতদিন পর্যন্ত অগ্রাধিকার তারিখ হাল নাগাদ হয় এবং নতুন ভিসার সংখ্যা আবার বর্তমান হয় সকল অভিবাসী ভিসা আবেদনকারীগন তাদের অগ্রাধিকার তারিখের হাল নাগাদ তথ্য জানতে পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েবসাইটে ভিসা বুলেটিন দেখতে পারেন 

বর্তমান অগ্রাধিকার তারিখ সমূহ 

অগ্রাধিকার তারিখ সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন  

 

মার্চ ২০২৪ এর তারিখ সমূহ   

F1: ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ (আমেরিকান নাগরিকদের অবিবাহিত ছেলে/মেয়েদের জন্য)

F2A: ২২ জুন ২০২০ (এলপিআরগনের স্বামী বা স্ত্রী এবং ২১ বছরের কম বয়সী সন্তানদের জন্য)

FX: ১৫ জুন ২০২০ (F2A কেইসেস যাদের অগ্রাধিকার তারিখ পুরোনো)

F2B: ২২ নভেম্বর ২০১৫ (এলপিাআরগনের অবিবাহিত ছেলে/মেয়েদের জন্য)

F3: ০১ অক্টোবর ২০০৯ (আমেরিকান নাগরিকদের বিবাহিত ছেলে/মেয়েদের জন্য)

F4: ০৮ জুন২০০৭ (আমেরিকান নাগরিকদের ভাই/ বোন এবং তাদের স্ত্রী/ স্বামী এবং ২১ বছরের কম বয়সী সন্তানদের জন্য)

E3: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ (দক্ষ কর্মীরা এবং তাদের স্ত্রী/ স্বামী এবং ২১ বছরের কম বয়সী সন্তানদের জন্য)

EW: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ (অ-দক্ষ কর্মীরা এবং তাদের স্ত্রী/ স্বামী এবং ২১ বছরের কম বয়সী সন্তানদের জন্য)

ফি

অভিবাসী ভিসা

  • নিকটাত্মীয় পারিবারিক অগ্রাধিকারভিত্তিক আবেদন (প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয় অনুমোদিত আই১৩০, আই৬০০ অথবা আই৮০০ পিটিশনের ভিত্তিতে): ৩২৫ ডলার
  • কর্মসংস্থান ভিত্তিক আবেদন (প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয় অনুমোদিত আই১৪০ পিটিশনের ভিত্তিতে): ৩৪৫ ডলার
  • অন্যান্য অভিবাসী ভিসা আবেদন (নিজের জন্য করা আই৩৬০এর অনুমোদিত পিটিশন, বিশেষ অভিবাসী ভিসা আবেদন, রিটার্নিং রেসিডেন্ট (এসবি) ভিসা আবেদন, এবং ডিভির জন্য নির্বাচিত আবেদন ছাড়া বাকি সব ধরনের আবেদন): ২০৫ ডলার
  • অনাথ (আন্তঃদেশীয় দত্তক গ্রহণ) নিকটাত্মীয়ের জন্য পিটিশন (আই৬০০, আই৮০০): ৭৭৫ ডলার
  • এফিডেভিট অফ সাপোর্ট রিভিউ (শুধু দেশের ভেতরে প্রযোজ্য হলে): ১২০ ডলার

অন্যান্য ফি

  • ডিএইচএস (DHS) বায়োমেট্রিক্স ফি: ৮৫ ডলার 
  • রিটার্নিং রেসিডেন্ট ভিসার যোগ্যতা নির্ধারণের জন্য আবেদন, ফর্ম ডিএস১১৭: ১৮০ ডলার

ভিসা সম্পর্কে প্রশ্ন

ইমেইল:

ফোন:

  • বাংলাদেশ থেকে: কল করুন + ৮৮-০৯৬ ১০ ২০ ২০ ৪০
  • যুক্তরাষ্ট্র থেকে: কল করুন + ১-৭০ ৩৯ ৮৮ ৩৪৬৬

ফ্যাক্স বা চিঠির মাধ্যমে কোনও অনুসন্ধান গ্রহণ করা হবে না।
বাংলাদেশি ডাকের মাধ্যমে আমাদের কাছে পাঠানো নথিপত্র পাওয়ার পরই নষ্ট করে ফেলা হবে।
আন্তর্জাতিক ডাকের মাধ্যমে আমাদের কাছে পাঠানো নথিপত্র বাংলাদেশ কাস্টমসেই ছেড়ে দেওয়া হবে। এগুলো সংগ্রহ করার জন্য আমরা কোনও ফি দিতে অক্ষম। ব্যক্তিগত পরিচয় সনাক্ত হয় নথিপত্রে থাকা এমন সব তথ্যের বিষয়ে ঝুঁকি প্রেরকের নিজের।

ইমিগ্র্যান্ট ভিসা সাক্ষাৎকার: আপনার যা করা দরকার